100 টি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি এবং বাণী

You are currently viewing 100 টি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি এবং বাণী
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি (Rabindranath quotes in bengali)

আজ আমরা আপনাদের সামনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি গুলি তুলে ধরার চেষ্টা করবো। আশাকরি এই সমস্ত উক্তি গুলি আপনাদের ভালো লাগবে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্ম কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুরবাড়িতে। ঠাকুরবাড়ি থেকে প্রকাশিত ভারতী ও বালক পত্রিকায় তিনি নিয়মিত লিখতেন। দীর্ঘ জীবনে অজস্র কবিতা, গান, ছোটোগল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ লিখেছেন এবং ছবি এঁকেছেন।

১৯১৩ সালে “song offerings” এর জন্য এশিয়ার মধ্যে তিনিই প্রথম নোবেল পুরস্কার পান। দুটি স্বাধীন রাষ্ট্র- ভারত ও বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত তাঁর রচনা। তাহলে চলুন দেরী না করে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি গুলি পড়া শুরু করা যাক।

শিক্ষা নিয়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি

রবি ঠাকুরের শিক্ষা বিষয়ক যে উক্তি গুলি না পড়লেই নয়, সেগুলি হল-

1. “অপর ব্যক্তির কোলে পিঠে চড়িয়া অগ্রসর হওয়ার কোন মাহাত্ম্য নাই। কারণ চলিবার শক্তি লাভই যথার্থ লাভ, অগ্রসর হওয়া মাত্র লাভ নহে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

2. “সামনে একটা পাথর পড়লে যে লোক ঘুরে না গিয়ে সেটা ডিঙ্গিয়ে পথ সংক্ষেপ করতে চায়, বিলম্ব তারই অদৃষ্টে আছে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

3. “মনুষ্যত্বের শিক্ষাটাই চরম শিক্ষা। আর সমস্তই তার অধীন।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

4. “নিন্দা করতে গেলে বাইরে থেকে করা যায়, কিন্তু বিচার করতে গেলে ভিতরে প্রবেশ করতে হয়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আরও পড়ুন- 100 টি কাজী নজরুল ইসলামের উক্তি (বাংলাদেশের জাতীয় কবি)

5. “অধিকার ছাড়িয়া দিয়া অধিকার ধরিয়া রাখার মতো বিড়ম্বনা আর হয় না।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

6. “অতীতকাল যত বড় কালই হোক, নিজের সম্বন্ধে বর্তমান কালের একটা স্পর্ধা থাকা উচিত। মনে থাকা উচিত তার মধ্যে জয় করবার শক্তি আছে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“আগুনকে যে ভয় পায়, সে আগুনকে ব্যবহার করতে পারে না।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

7. “তর্কের বেলায় গৃহিণীর যুক্তিকে অকাট্য বলে, কাজের বেলায় নিজের যুক্তিতে চলাই সৎ পরামর্শ।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

8. “অক্ষমের লোভ আলাদীনের প্রদীপের গুজব শুনলেই লাফিয়ে উঠে।” – রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর

9. “নিজের অজ্ঞতা সম্বন্ধে অজ্ঞানতার মতো অজ্ঞান আর তো কিছুই নেই।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

10. “এ জগতে হায় সেই বেশী চায় আছে যার ভূরি ভূরি-রাজার হস্ত করে সমস্ত কাঙালের ধন চুরি।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

11. “যে খ্যাতির সম্বল অল্প তার সমারোহ যতই বেশী হয়, ততই তার দেউলে হওয়া দ্রুত ঘটে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

12. “পাপকে ঠেকাবার জন্য কিছু না করাই তো পাপ।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“চন্দ্রের যা কলঙ্ক সেটা কেবল মুখের উপরে, তার জ্যোৎস্নায় কোনো দাগ পড়ে না।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

13. “যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে তবে একলা চলো রে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

14. “অধিকার চেয়ে পাওয়া যায় না, কর্মের দ্বারা অধিকার সৃষ্টি করতে হয়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

15. “শিমুল কাঠই হোক বা বকুল কাঠই হোক, আগুনের চেহারাটা একই।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আরও পড়ুন- স্বামী বিবেকানন্দের বাণী: যেগুলি আপনাকে অনুপ্রাণিত করবে

16. “মানুষের উপর বিশ্বাস হারানো পাপ।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

17. “যে ছেলে চাওয়া মাত্রই পায়, চাওয়ার পূর্বেই যার অভাব মোচন হতে থাকে, সে নিতান্ত দুর্ভাগা। ইচ্ছা দমন করতে না শিখে কেউ কোনকালে সুখী হতে পারেনা।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

18. “জ্ঞানী লোকেরা আমাকে এই বলে সতর্ক করে যে, জীবন হচ্ছে পদ্মপাতার জলের মতো।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“রুপনারায়নের কূলে জেগে উঠিলাম, জানিলাম এ জগত স্বপ্ন নয়।”-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

19. “যে লোক পরের দুঃখকে কিছুই মনে করে না, তাহার সুখের জন্য ভগবান ঘরের মধ্যে এত স্নেহের আয়োজন কেন রাখিবেন?” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রেমের উক্তি

প্রেম নিয়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি গুলি আজও স্মরণীয় হয়ে আছে। তার সেই সমস্ত স্মরণীয় উক্তি গুলি হল-

1. “সম্পর্ক রক্তের বাঁধনে নয়, অনুভূতির বাঁধনে তৈরি হয়। যেখানে অনুভূতির বাঁধন থাকে সেখানে পরও আপন হয়। আর যেখানে অনুভূতির বাঁধন থাকে না সেখানে আপনও পর হয়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

2. “এমন প্রেম করো না সকালে আছে বিকেলে নেই। এমন বন্ধুত্ব করো না যা সময়ের সাথে সাথে দূরে সরে যায়। এমন ভালোবেসো না যেখানে অভিনয় ছাড়া কিছু নেই।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

3. “একটা মন আর একটা মনকে খুঁজিতেছে, নিজের ভাবনার ভার নামাইয়া দিবার জন্য। নিজের মনের ভাবকে অনের মনে ভাবিত করিবার জন্য।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আরও পড়ুন- এ পি জে আব্দুল কালামের উক্তি: সফলতা পেতে সাহায্য করবে

4. “আমি তোমাকে অসংখ্য ভাবে ভালোবেসেছি, অসংখ্যবার ভালোবেসেছি। এক জীবনের পর অন্য জীবনেও ভালোবেসেছি। বছরের পর বছর, সর্বদা, সবসময়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

5. “মনে যখন একটা প্রবল আনন্দ, একটা বৃহৎ প্রেমের সঞ্চার হয় তখন মানুষ মনে করে- আমি সব পারি। তখন হঠাৎ আত্মবিসর্জনের ইচ্ছা বলবতী হইয়া ওঠে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“তোমার প্রজাপতির পাখা, আমার আকাশ-চাওয়া, মুগ্ধ চোখের রঙিন স্বপন মাখা। তোমার চাঁদের আলোয় মিলায় আমার, দুঃখ-সুখের সকল অবসান।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

6. “সোহাগের সঙ্গে রাগ না মিশিলে ভালবাসার স্বাদ থাকেনা, তরকারীতে লঙ্কামরিচের মতো।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

7. “ক্ষুদ্রকে লইয়াই বৃহৎ, সীমাকে লইয়াই অসীম, প্রেমকে লইয়াই মুক্তি। প্রেমের আলো যখনই পাই তখনই যেখানে চোখ মেলি সেখানেই দেখি, সীমার মধ্যে সীমা নাই।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

8. “ভালোবাসা কথাটা বিবাহ কথার চেয়ে আরো বেশি জ্যান্ত।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

9. “তুমি যদি কাউকে ভালোবাসো, তবে তাকে ছেড়ে দাও। যদি সে তোমার কাছে ফিরে আসে তবে সে তোমারই ছিল। আর যদি ফিরে না আসে, তবে সে কখনই তোমার ছিল না।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আরও পড়ুন- হুমায়ূন আহমেদের উক্তি (humayun ahmed quotes in bengali)

10. “প্রত্যেকটা মন আরেকটা মনকে খুঁজছে নিজের ভাবনার ভার নামিয়ে দেওয়ার জন্য। নিজের মনের ভাবকে অন্যের মনে ভাবিয়ে তোলার জন্য।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“ভালোবাসা কোনো অধিকারের মধ্যে কাউকে আটকিয়ে ফেলে না, বরং তাকে নতুন স্বাধীনতা দান করে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

11. “আমার তৃষ্ণা তোমার সুধা, তোমার তৃপ্তি আমার সুধা।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

12. “আনন্দকে ভাগ করলে দুটি জিনিস পাওয়া যায়। একটি হচ্ছে জ্ঞান এবং অপরটি হচ্ছে প্রেম।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

13. “ক্ষমাই যদি করতে না পারো, তবে তাকে ভালোবাসো কেন?” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

14. “প্রহর শেষের আলোয় রাঙা সেদিন চৈত্রমাস, তোমার চোখে দেখেছিলাম আমার সর্বনাশ।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

15. “আমি তোমারি বিরহে রহিব বিলীন, তোমাতে করিবো বাস। দীর্ঘ দিবস, দীর্ঘ রজনী, দীর্ঘ বর্ষ-মাস। যদি আর-কারে ভালোবাসো, যদি আর ফিরে নাহি আসো, তবে তুমি যাহা চাও তাই যেন পাও, আমি যতো দুখ পাই গো।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“সুখের সাথে টাকার কোন সম্পর্ক নেই। টাকা শুধু চাহিদা মেটায়। সুখ যদি টাকা দিয়ে কিনতে পাওয়া যেত, তাহলে ভালোবাসাটা দোকানে বিক্রি হতো।”-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

16. “রুদ্র, তোমার দারুণ দীপ্তি এসেছে দুয়ার ভেদিয়া; বক্ষে বেজেছে বিদ্যুৎবাণ স্বপ্নের জাল ছেদিয়া।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আরও পড়ুন- চাণক্য নীতি: জীবনকে আরও সহজ করে দেবে

17. “প্রেমের মধ্যে ভয় না থাকলে রস নিবিড় হয় না।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

18. “পৃথিবীতে বালিকার প্রথম প্রেমের মত সর্বগ্রাসী প্রেম আর কিছুই নাই। প্রথম যৌবনে বালিকা যাকে ভালোবাসে তাহার মত সৌভাগ্যবান আর কেহই নাই। যদিও সে প্রেম অধিকাংশ সময় অপ্রকাশিত থেকে যায়, কিন্তু সে প্রেমের আগুন সব বালিকাকে সারাজীবন পোড়ায়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সেরা উক্তি

রবি ঠাকুরের সেরা উক্তি গুলি হল-

1. “কাউকে নিজের চেয়ে বেশী ভালবাসতে যেও না। কেনোনা, ভালোবাসাটা এমন একটা জিনিস, যা বেশী পেলে অবহেলা করে। মনে রেখো, ভালোবাসার মর্যাদা সকলে দিতে পারে না।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

2. “আছে দুঃখ, আছে মৃত্যু, বিরহ দহন লাগে। তবুও শান্তি, তবু আনন্দ, তবু অনন্ত জাগে। তবু প্রাণ নিত্যধারা, হাসে সূর্য চন্দ্র তারা, বসন্ত নিকুঞ্জে আসে বিচিত্র রাগে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

3. “মানুষ পণ করে পণ ভাঙিয়া ফেলিয়া হাঁফ ছাড়িবার জন্য।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

4. “সংসারের কোন কাজেই যে হতভাগ্যের বুদ্ধি খেলে না, সে নিশ্চয়ই ভাল বই লিখিবে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

5. “সংসারে সাধু-অসাধুর মধ্যে প্রভেদ এই যে, সাধুরা কপট আর অসাধুরা অকপট।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

6. “যৌবনই ভোগের কাল, বার্ধক্য স্মৃতিচারণের।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“সুখ কখনো জোর করে জীবনে আনা যায় না, যখন আসে সবকিছু নিয়েই আসে। যখন যায় সবকিছু নিয়ে যায়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

7. “চিত্ত যেথা ভয়শূন্য, উচ্চ যেথা শির, জ্ঞান যেথা মুক্ত, যেথা গৃহের প্রাচীর। আপন প্রাঙ্গণতলে দিবসশর্বরী বসুধারে রাখে নাই খন্ড ক্ষুদ্র করি।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

8. “নরমাংসের স্বাদ পাইলে মানুষের সম্বন্ধে বাঘের যে দশা হয়, স্ত্রীর সম্বন্ধে তাহার ভাবটা সেইরূপ হইয়া উঠে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

আরও পড়ুন- বিল গেটসের উক্তি: ধনী হতে সাহায্য করবে

9. “মানুষের একটা বয়স আছে যখন সে চিন্তা না করিয়াও বিবাহ করিতে পারে। সে বয়স পেরোলে বিবাহ করিতে দুঃসাহসিকতার দরকার হয়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

10. “দীর্ঘ আয়ু, দীর্ঘ অভিশাপ বিচ্ছেদের তাপ নাশে সেই বড়ো তাপ।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

11. “আমরা কথার অধীন, প্রধার অধীন, অসংখ্য প্রবৃত্তির অধীন।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

12. “চোখ কতোটুকুই দেখে, কান কতোটুকুই শোনে, স্পর্শ কতোটুকুই বোধ করে। কিন্তু মন এই আপন ক্ষুদ্রতাকে কেবলই ছড়িয়ে যাচ্ছে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“কী পাইনি তারই হিসাব মেলাতে মন মোর নহে রাজি।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

13. “বিয়ে করলে মানুষকে মেনে নিতে হয়, তখন আর গড়ে নেবার ফাঁক পাওয়া যায় না।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

14. “সময়ের সমুদ্রে আছি কিন্তু এক মুহুর্তে সময় নেই।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

15. “যে পুরুষ অসংশয়ে অকুন্ঠিতভাবে নিজেকে প্রচার করিতে পারে সেই সমর্থ পুরুষ। সহজেই নারীর দৃষ্টি আর্কষণ করিতে পারে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

16. “ভয়ের তাড়া খেলেই ধর্মের মূঢ়তার পিছনে মানুষ লুকাতে চেষ্টা করে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“ধর্ম যারা সম্পূর্ণ উপলব্ধি না করিয়া প্রচার করিতে চেষ্টা করে তহারা ক্রমশই ধর্মকে জীবন হইতে দূরে ঠেলিয়া থাকে। ইহারা ধর্মকে বিশেষ গন্ডি আঁকিয়া একটা বিশেষ সীমানার মধ্যে আবদ্ধ করে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

17. “বিপদে মোরে রক্ষা করো এ নহে মোর প্রার্থনা।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

18. “নারী দাসী বটে, কিন্তু সেই সঙ্গে নারী রাণীও বটে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

19. “আমরা বন্ধুর কাছ থেকে মমতা চাই, সমবেদনা চাই, সাহায্য চাই। সেই জন্যই বন্ধুকে চাই।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

20.. “গোলাপ যেমন একটি বিশেষ জাতের ফুল, বন্ধু তেমনি একটি বিশেষ জাতের মানুষ।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“যে ধর্মের নামে বিদ্বেষ সঞ্চিত করে, ঈশ্বরের অর্ঘ্য হতে সে হয় বঞ্চিত।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

21. “কখনো বা চাঁদের আলোয়, কখনো বসন্ত সমীরণে, সেই ত্রিভুবনজয়ী অপার রহস্যময়ী আনন্দ মূর্তিখানি জেগে ওঠে মনে” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

22. “সাধারণত স্ত্রীজাতি কাঁচা আম, ঝাল লঙ্কা এবং কড়া স্বামীই ভালোবাসে। যে দুর্ভাগ্য পুরুষ নিজের স্ত্রীর ভালোবাসা হইতে বঞ্চিত সে যে কুশ্রী অথবা নির্ধন তাহা নহে; সে নিতান্ত নিরীহ।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিরহের উক্তি

বিরহ নিয়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অনেক বাণী আছে। তার মধ্য থেকে বিখ্যাত কিছু বাণী হল –

1. “পৃথিবীর সবচেয়ে বড় দূরত্ব কোনটি জানো? নাহ, জীবন থেকে মৃত্যু পর্যন্ত, উত্তরটা সঠিক নয়। সবচেয়ে বড় দূরত্ব হলো যখন আমি তোমার সামনে থাকি, কিন্তু তুমি জানো না যে আমি তোমাকে কতোটা ভালোবাসি।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

2. “আমার মৃত্যুকালে তোমাকে যে কথাটা বলিবো মনে করিয়াছিলাম, আজ তাহা বলিতে ইচ্ছা করিতেছে। আজ মনে হইতেছে, তুমি আমাকে যত শাস্তি দাও না কেন আমি বহন করিতে পারিবো।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

3. “ভালোবাসা হলো একমাত্র বাস্তবতা এটি শুধুমাত্র আবেগ দিয়ে নিয়ন্ত্রিত নয়। এটি হলো একটি চিরন্তন সত্য যা যেই হৃদয়ে সৃষ্টি হয়, সেই হৃদয়ে থাকে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

4. “তুমি যদি না দেখা দাও কর আমায় হেলা, কেমন করে কাটে আমার এমন বাদল-বেলা।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

5. “প্রেমের আনন্দ থাকে স্বল্পক্ষণ, কিন্তু বেদনা থাকে সারাটি জীবন।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

6. “সে যে মনের মানুষ, কেন তারে বসিয়ে রাখিস নয়ন দ্বারে? ডাক নারে তোর বুকের ভিতর নয়ন ভাসুক নয়ন ধরে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“মন দিয়ে মন বোঝা যায়। গভীর বিশ্বাস শুধু নীরব প্রাণের কথা টেনে নিয়ে আসে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

7. “অলৌকিক আনন্দের ভার বিধাতা যাহারে দেন, তার বক্ষে বেদনা অপার।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

8. “পাওয়া কাকে বলে যে মানুষ জানে না সে ছোঁয়াকেই পাওয়া মনে করে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

9. “সমাজ সংসার মিছে সব, মিছে এ জীবনের কলরব। কেবলই আঁখি দিয়ে আঁখির সুধা পিয়ে, হৃদয় দিয়ে হৃদি অনুভব, আঁধারে মিশে গেছে আর সব।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

10. “এরা সুখের লাগি চাহে প্রেম। প্রেম মেলে না, শুধু সুখ চলে যায়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

11. “রমনী অনর্থথক হাসে…তাহা দেখিয়া অনেক পুরুষ অনর্থক কাঁদে। অনেক পুরুষ ছন্দ মিলাতে বসে, অনেক পুরুষ গলায় দড়ি দিয়া মরে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

12. “নদীর এপার কহে ছাড়িয়া নিশ্বাস ওপারেতে সর্বসুখ আমার বিশ্বাস। নদীর ওপার বসিয়া দীর্ঘ নিশ্বাস ছাড়ে কহে যাহা, কিছু সুখ সকলই ওপারে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“ওগো অকরুণ, কী মায়া জানো, মিলনছলে বিরহ আনো।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

13. “মেয়েরা অল্প কারণে কাঁদতে জানে এবং বিনা কারণে হাসতে পারে। কারণ ব্যতীত কার্য হয় না। জগতের এই কড়া নিয়মটা কেবল পুরুষের পক্ষেই খাটে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অন্যান্য উক্তি

1. “এসো, এসো, এসো হে বৈশাখ তাপস নিশ্বাস বায়ে মুমূর্ষুরে দাও উড়ায়ে, বৎসরের আবর্জনা দূর হয়ে যাক যাক পুরাতন স্মৃতি, যাক ভুলে যাওয়া গীতি, অশ্রুবাষ্প সুদূরে মিলাক। মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা, অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

2. “হঠাৎ একদিন পূর্ণিমার রাত্রে জীবনে যখন জোয়ার আসে, তখন যে একটা বৃহৎ প্রতিজ্ঞা করিয়া বসে জীবনের সুদীর্ঘ ভাটার সময় সে প্রতিজ্ঞা রক্ষা করিতে তাহার সমস্ত প্রাণে টান পড়ে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

3. “যৌবনের শেষে শুভ্র শৎরকালের ন্যায় একটি গভীর প্রশান্ত প্রগাঢ় সুন্দর বয়স আসে যখন জীবনের শেষে ফল ফলিবার এবং শস্য পাকিবার সময়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

4. “বিপদে মোরে রক্ষা কর এ নহে মোর প্রার্থনা। বিপদে আমি না যেন করি ভয়।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

5. “ছোট ছোট মুখ জানে না ধরার দুখ, হেসে আসে তোমাদের দ্বারে। নবীণ নয়ন তুলি কৌতুকেতে দুলি দুলি চেয়ে চেয়ে দেখে চারিধারে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

6. “সাত কোটি বাঙালিরে হে মুগ্ধ জননী রেখেছ বাঙালি করে মানুষ করনি।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“সুখে আছে যারা সুখে থাক তারা, সুখের বসন্ত সুখে হোক সারা।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

7. “লোকে ভুলে যায় দাম্পত্যটা একটা আর্ট, প্রতিদিন ওকে নতুন করে সৃষ্টি করা চাই।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

8. “যারে তুমি নিচে ফেল সে তোমাকে বাঁধিবে যে নিচে। পশ্চাতে রেখেছ যারে সে তোমারে পশ্চাতে টানিছে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

9. “সে আমার সম্পত্তি নয়, সে আমার সম্পদ।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

10. “যদি কেউ কোনোদিন তোমায় ছোটো করতে চায়, ভেবে নিও তুমি তাদের চেয়ে অনেক ওপরে আছো।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

11. “কখনো বা চাঁদের আলোতে, কখনো বসন্তসমীরণে, সেই ত্রিভুবনজয়ী, অপাররহস্যময়ী আনন্দ-মুরতিখানি জেগে ওঠে মনে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

12. “কত বড়ো আমি কহে নকল হীরাটি। তাই তো সন্দেহ করি নহ ঠিক খাঁটি।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

“অন্যায় যে করে আর অন্যায় যে সহে, তবে ঘৃণা তারে যেস তৃণসম দহে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

13. “মধুর বসন্ত এসেছে মধুর মিলন ঘটাতে। মধুর মলয়-সমীরে মধুর মিলন রটাতে। কুহক লেখনী ছুটায়ে কুসুম তুলিছে ফুটায়ে, লিখিছে প্রণয়-কাহিনী বিবিধ বরন-ছটাতে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

14. “হেরো পুরানো প্রাচীন ধরণী হয়েছে শ্যামল-বরনী, যেন যৌবন-প্রবাহ ছুটিছে কালের শাসন টুটাতে; পুরানো বিরহ হানিছে, নবীন মিলন আনিছে, নবীন বসন্ত আইল নবীন জীবন ফুটাতে।” – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি গুলি আপনাদের কেমন লাগলো তা আমাদের কমেন্টে অবশ্যই জানাবেন।

Leave a Reply